corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা মোকাবিলায় শিলিগুড়িতে এবার ঘুরছে স্যানিটাইজেশন ট্যাঙ্কার!

করোনা মোকাবিলায় শিলিগুড়িতে এবার ঘুরছে স্যানিটাইজেশন ট্যাঙ্কার!

প্রতিদিনই প্রতিটি ওয়ার্ডে স্যানিটাইজেশনের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে পুরসভার কর্মীরা। বেসরকারিভাবেও অনেকেই এগিয়ে এসেছে।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: করোনা আক্রান্তের সংখ্যা এক জায়গায় দাঁড়িয়ে নেই শিলিগুড়িতে। পাহাড়ে সংক্রমণ কমলেও সমতলের শিলিগুড়িতে ক্রমেই জাল ছড়াচ্ছে মারণ করোনা। বিশেষ করে পুর এলাকা ছাপিয়ে যাচ্ছে গ্রামীণ এলাকাকে। প্রতিদিনই হু হু করে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে। পুরসভার ১ থেকে ৪৭ সব ওয়ার্ডই এক জন করে করোনায় আক্রান্ত! তবে অন্য ওয়ার্ডগুলোকে ছাপিয়ে ১৮, ২৮, ৩৬ এবং ৪৬ নং ওয়ার্ডে সংক্রমণের সংখ্যাটা বেশি। শিলিগুড়িতে আক্রান্তের সংখ্যা ৫০০-র কাছাকাছি। সুস্থ হয়ে উঠেছে ২৫০-এর বেশি আক্রান্ত। এখনও পর্যন্ত ১৯ জন আক্রান্তের মৃত্যু হয়েছে। যদিও স্বাস্থ্য দফতরের এক আধিকারিকের দাবি, মৃতদের মধ্যে অধিকাংশই করোনা ছাড়াও অন্য একাধিক রোগে আক্রান্ত ছিলেন।

পরিস্থিতির মোকাবিলায় ইতিমধ্যেই একাধিক বাজার বন্ধ রয়েছে। টাউন স্টেশন বাজার, টিকিয়াপাড়া বাজার, হায়দরপাড়া বাজার, শালুগাড়া বাজার, একতিয়াশাল হাট সহ ৬টি বাজার আগামী রবিবার পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। ফের পরের দফায় বন্ধ করা হবে অন্য কয়েকটি বাজার। প্রতিদিনই প্রতিটি ওয়ার্ডে স্যানিটাইজেশনের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে পুরসভার কর্মীরা। বেসরকারিভাবেও অনেকেই এগিয়ে এসেছে।

বুধবার ২২ নং ওয়ার্ডে ঘুরলো স্যানিটাইজেশন ট্যাঙ্কার। ওয়ার্ডজুড়ে এক গলি থেকে অন্য গলিতে চললো স্যানিটাইজেশন প্রক্রিয়া। ওয়ার্ড কমিটি এবং অরবিন্দ স্পোর্টিং ক্লাবের যৌথ উদ্যোগে চলে স্যানিটাইজেশন। এদিকে আক্রান্ত হলেই তাঁর বাড়ি বা ফ্ল্যাট বাঁশের ব্যারিকেডে ঘিরে ফেলা হচ্ছে। এতে আতঙ্ক আরও বাড়ছে বলে দাবি উঠেছে। যেন সমাজ থেকে আলাদা করে দেওয়া হচ্ছে। এমন ধারনা আক্রান্তদের পরিবার-সহ অন্যান্যদের। আর তাই এদিন ৩৮ নং ওয়ার্ডে অভিনব উপায় বের করলেন ওয়ার্ড কো-অর্ডিনেটর দুলাল দত্ত। বাঁশের ব্যারিকেড খুলে লাগানো হল লাল রিবন। এতে আতঙ্ক কিছুটা কমবে বলে দাবি তাঁর। জেলাশাসক এস পুন্নমবালামও জানিয়েছেন এই নিয়ে আলোচনা করে বিকল্প পথ বের করবেন। কেন না এখন অলিতে গলিতে চোখ পড়লেই শুধুই বাঁশের ব্যারিকেড। মানে আতঙ্ক তাড়া করে বেড়ায়!

Published by: Dolon Chattopadhyay
First published: July 1, 2020, 4:10 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर