বিনোদন

corona virus btn
corona virus btn
Loading

এখনও অতি সংকটজনক ‌অবস্থাতেই রয়েছেন সৌমিত্র, উদ্বেগ বাড়ছে চিকিৎসকদের

এখনও অতি সংকটজনক ‌অবস্থাতেই রয়েছেন সৌমিত্র, উদ্বেগ বাড়ছে চিকিৎসকদের

রক্তে ইউরিয়া, ক্রিয়েটিনিন ক্রমশ বাড়ছে। বলা হয়েছে, ভেন্টিলেশন থেকে বের হলে চেতনা ফেরানোর চেষ্টা করা হবে। এছাড়া, প্লেটলেট বাড়াতে সৌমিত্রকে ওষুধ দেওয়া হবে বলেও শোনা গিয়েছে।

  • Share this:

#‌কলকাতা:‌ এখনও অতি সংকটজনক ‌অবস্থাতেই রয়েছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। তাঁর মস্তিষ্ক ঠিকঠাক কাজ না করায় উদ্বেগ রয়েছে চিকিৎসকদের মধ্যে। তবে রাতে ভাল ঘুম হয়েছে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের। পাশাপাশি অভিনেতার ফুসফুসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। কিন্তু রক্তে ইউরিয়া, ক্রিয়েটিনিন ক্রমশ বাড়ছে। বলা হয়েছে, ভেন্টিলেশন থেকে বের হলে চেতনা ফেরানোর চেষ্টা করা হবে। এছাড়া, প্লেটলেট বাড়াতে সৌমিত্রকে ওষুধ দেওয়া হবে বলেও শোনা গিয়েছে।

সোমবার রাতেই ভেন্টিলেশনে দেওয়া হয়েছিল সৌমিত্রবাবুকে। হাসপাতাল সূত্রে পাওয়া খবর অনুযায়ী, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের শরীরে সোডিয়াম ও পটাশিয়ামের মাত্রার তারতম্য ঘটেছে ৷ পাশাপাশি তাঁর স্নায়ু ঠিক মতো কাজ করছে না । মস্তিষ্কের স্নায়ু প্রায় অচল হয়ে গিয়েছে । তবে অভিনেতার হার্ট, কিডনি, ফুসফুস স্বাভাবিকভাবে কাজ করছিল বলে জানিয়েছিল হাসপাতাল । মঙ্গলবার সকালে জানা গিয়েছিল, শোনা যাচ্ছে তাঁর কিডনিও এখন আর সঠিকভাবে কাজ করছে না ।

সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে নিয়ে উদ্বেগে রয়েছে গোটা বাংলা সহ গোটা দেশ । কিন্তু হাসপাতালের বিছানায় তাঁর শরীর ক্রমেই কাজ করা বন্ধ করে দিচ্ছে । বেলভিউ হাসপাতাল সূত্রে জানান হয়েছে, গত ২৪ অক্টোবর থেকে সৌমিত্রবাবুর শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে। করোনা এনসেফ্যালোপ্যাথির সংক্রমণ বেড়েছে সৌমিত্রের শরীরে । দেশ ও বিদেশের স্নায়ুরোগ বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নেওয়া হচ্ছে । আগে থেকেই এনসেফালোপ্যাথি এর জটিল সমস্যায় আক্রান্ত ছিলেন পর্দার ‘অপু’ । সেটা গত কয়েকদিনে অনেকটাই নিয়ন্ত্রিত হয়েছিল। কিন্তু সম্প্রতি তা আবার সংক্রমিত হয়েছে ।

দেশের এবং বিদেশের বিভিন্ন বিশিষ্ট স্নায়ু বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নেওয়া হচ্ছে । চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, সৌমিত্রবাবুর চেতনাও কিছুটা কমে গিয়েছে । পাশাপাশি কমেছে তাঁর প্লেটলেটের সংখ্যা । শরীরে বেড়েছে ইউরিয়া আর সোডিয়ামের মাত্রা। ইমিউনোগ্লোবিন এবং স্টেরয়েড দিয়ে একটা সময় পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলেও তা দীর্ঘস্থায়ী হয়নি।

গত ৬ অক্টোবর থেকে হাসপাতালে ভরতি আছেন ৮৫ বছরের অভিনেতা। একটা সময় তাঁকে বাইপ্যাপ সাপোর্টে দেওয়া হয়েছিল। তারপর অবশ্য তাঁর অবস্থার কিছুটা উন্নতি ঘটে । করোনা রিপোর্টও নেগেটিভ এসেছিল । কিন্তু অবস্থার ফের অবনতি হয়েছে ।

Published by: Uddalak Bhattacharya
First published: October 28, 2020, 10:30 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर